বিনোদনঢালিউড

মামলা করার কারণ জানালেন ন্যান্সি

সংগীত শিল্পী আসিফ ও ন্যান্সির বিতর্কের শুরু টেলিভিশন টকশোর মধ্য দিয়ে। সেই বাকযুদ্ধ গড়ালো আদালত পর্যন্ত। দুজনেই প্রস্তুতি নিচ্ছেন আইনী লড়াইয়ের।

এক সাক্ষাৎকারে ন্যান্সিকে পাগল বলায় গতবছরের জুলাই মাসে আসিফ আকবরের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ দায়ের করেন নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। গত তিরিশে ডিসেম্বর আদালতের সমন পান আসিফ। এরমধ্য দিয়েই দুই তারকার স্নায়ুযুদ্ধ গড়ায় আদালতের কাঠগড়ায়। আর এ নিয়ে চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

এদিকে, লাইভে এসে মামলা করার কারণ জানালেন ন্যান্সি। সোমবার (৪ জানুয়ারি) রাত পৌনে ৯.৪১ মিনে লাইভে এসে নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি বলেন, “২৬ জুন ২০১৮ সালে জাগো এফএম এর টিকটক উইথ আসিফ আকবর নামে একটি অনুষ্ঠানে আসিফ বলেন, ন্যান্সি সিঙ্গার ভালো কিন্তু মানুষ খারাপ, অকৃতজ্ঞ, বছরে ছয় মাস পাগল থাকে, তার একটু সমস্যা আছে। যাই হোক ওর গলার সাথে- চলাচল, কথাবার্তায় যায় না।”

ন্যান্সি বলেন, ‘আসিফ আমার কী কী উপকার করেছেন তা একমাত্র তিনিই জানেন। আমি যে পাগল থাকি ওনার কাছে কি ডাক্তারের কোন প্রিসক্রিপশন আছে? আর একটা পাগলকে রাষ্ট্র জীতয় পুরস্কার দিচ্ছে, বছর বছর সন্মানতা দেওয়া হচ্ছে, একটু পাগলকে গত বছরও উইমেন অ্যাওয়ার্ড দিয়েছে কি করে?’

ন্যান্সি আরো জানান, “৭ আগস্ট ২০১৮ এটিএনের একটি অনুষ্ঠানে আসিফ বলেন, ‘আমার মা যেদিন মারা যান তার চার/পাঁচ দিন আগে আমি ন্যান্সিকে ৫লাখ টাকা লোন দিয়েছিলাম। তখন ন্যান্সির ফ্যামিলি ক্রাইসিস চলছিলো আর ও (ন্যান্সি) চূড়ান্ত একটা মিথ্যাবাদী। যেটা আমার বউ সাক্ষী আছে।

যেটার টোটাল ব্যাপারটা ও আমার বউয়ের সাথে শেয়ার করেছে। ওর ট্যাবলের খাওয়া আর কি জানি নাটক…। ওর স্বামীর সাথে ওর একটা ঝামেলা ছিলো; এসব আমরা বলতে চাই না। শফিক তুহিন, প্রিতম ও ন্যান্সিকে নিয়ে নষ্ট করার মতো সময় আমার নেই।’ অথচ এসব কিছু মিথ্যে।”

এই সংগীত শিল্পী বলেন, এরপর চ্যানেল জি নিউজে ‘কেন ন্যান্সিকে মিথ্যুক বললেন আসিফ আকবর?’ নামে একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়। আর কি কি করলে একটা মানুষের মানহানি হয় প্লিজ আমাকে একটু বলবেন। আর কতদূরে মিথ্যে বললে একজন মানুষের মানহানি হয় আমার জানা নেই। আমার মনে হয়েছে, বিভ্রান্তিকর তথ্যে আসিফ আমার যথেষ্ট সম্মানহানি উনি করেছেন। তাই ওনার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, ন্যান্সির অভিযোগকে ভিত্তিহীন ও ষড়যন্ত্রমূলক বলে মন্তব্য করেন আসিফ। এর আগেও আসিফের বিরুদ্ধে বিভিন্ন কারণে মামলা হয়েছে। সেগুলো এখনো বিচারাধীন। আসিফের তথ্য অনুযায়ি মামলার সংখ্যা ১০টি।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button