দেশবাংলা

শেকলে বন্দি জীবন কাটছে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার দুই ভাই-বোনের

শেকলে বন্দি জীবন কাটছে,কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলার দুই ভাই-বোনের। সমাজের বিত্তবানসহ সরকারি সহায়তা পেলে,উন্নত চিকিৎসায় আবারো স্বাভাবিক জীবনে ফিরবে এমন আশা  হতদরিদ্র পরিবারের।

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার আচমিতা ইউনিয়নের গনেরগাঁও গ্রামের দিনমজুর ফজলু মিয়ার, চার মেয়ে এক ছেলে। তিন মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন তিনি। বয়সের ভারে এখন, দিন মজুরির কাজও করতে পারছেন না ফজলু মিয়া।এক বেলা খাবার জোটে তো, অন্য বেলা উপোষ। বসবাসের জন্য আছে একটি ভাঙ্গা ঘর।সেই ঘরের সামনে,মানুষিক প্রতিবন্ধী শেকলেবাঁধা ভাই- বোন জাহাঙ্গীর মিয়া ও আছিয়া খাতুনের জীবনযাপন।

১৪ বছর বয়সে পোশাক কারখানায় চাকরি নেয় আছিয়া খাতুন। নিজের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে,পাঁচ বছর ধরে কিছু টাকা জমাও রাখেন একজনের কাছে। কিন্তু তিল তিল করে জমানো সেই টাকা নিয়ে উধাও হয়ে যায় সে। এরপর থেকে মেয়েটি মানুষিক ভারসাম্য হারাতে থাকে।অর্থের অভাবে চিকিৎসাও করাতে পারেনি তার হতদরিদ্র পিতা। আর পরিবারের একমাত্র ছেলে জাহাঙ্গীর আলম, পড়াশোনার পাশাপাশি শ্রমিকের কাজ করতেন। পরে মোবাইল ফোনে রং নম্বরে প্রেমের  সম্পর্ক হয় এক মেয়ের সাথে। মেয়েটি তার সাথে প্রতারণা করে চলে যাবার পর, সেও ধীরে ধীরে মানুষিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে।

অসহায় দুই ভাই বোনকে সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন, উপজেলা উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা এবং উপজেলা চেয়ারম্যান। সরকারী বেসরকারী সহায়তায় অসহায় এই দুই ভাইবোন আবারও স্বাভাবিক জীবনে ফিরবে এমন প্রত্যাশা সবার।

বাংলাটিভি/দেশবাংলা

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button