আইন-বিচারবাংলাদেশ

অবশেষে টাকা দিচ্ছে গ্রামীণফোন

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ১ হাজার কোটি টাকা পরিশোধ করবে গ্রামীণফোন। শুক্রবার এক বিবৃতিতে এ সিদ্ধান্ত জানায় গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষ। এর আগে, বৃহস্পতিবার আপীল বিভাগের নির্দেশের পর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানটি।

আদেশে বলা হয়েছে, গ্রামীণফোনের কাছে বিটিআরসির যে পাওনা টাকা সেটা কমানোর কোনো সুযোগ নাই। সেক্ষেত্রে তাদের আগামী সোমবারের মধ্যে অন্তত এক হাজার কোটি টাকা দিতে হবে। বাকি টাকার বিষয়ে ওই দিন পরবর্তী আদেশ দেয়া হবে। তবে একদিন আগেই ওই টাকা পরিশোধ করে দেয়া হবে বলে গ্রামীণফোনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে বিটিআরসি জানায়, গ্রামীণফোনের কাছে নিরীক্ষা আপত্তির প্রায় ১২ হাজার কোটি টাকা পাওনা রয়েছে তাদের। এ টাকা আদায়ে কয়েক দফা চেষ্টা করার পর গ্রামীণফোনের লাইসেন্স বাতিলের নোটিশ পাঠায় বিটিআরসি। তবে বিটিআরসি’র এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হয় গ্রামীণফোন।

এরইমধ্যে আদালতের বাইরে সমঝোতার বিভিন্ন চেষ্টা সফল না হওয়ায় গ্রামীনফোণের এক আবেদনের প্রেক্ষিতে বিটিআরসি’র নোটিশের ওপর দুই মাসের নিষেধাজ্ঞা দেন হাইকোর্ট। পরে এ বিটিআরসি আপীল করলে আগামী ২৪ নভেম্বরের মধ্যে গ্রামীণফোনকে ২ হাজার কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ দেন আপীল বিভাগ ।

তবে এরিমধ্যে অডিট আপত্তির দাবির বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যেতে বিটিআরসি’তে ১০০ কোটি টাকা জমা দিতে বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) গিয়েছিল গ্রামীণফোন। তবে তা ফিরিয়ে দেয় বিটিআরসি।

উচ্চ আদালতের দুই হাজার কোটি টাকা দেওয়ার নির্দেশনার বিরুদ্ধে গ্রামীণফোনের করা রিভিউ আবেদনের শুনানি হয় বৃহস্পতিবার। শুনানি শেষে আদালত সোমবারের (২৪ ফেব্রুয়ারি) মধ্যে ১ হাজার কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ দেন গ্রামীণফোনকে। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন সাত সদস্যের আপিল বিভাগ এ দিনটি ধার্য করেন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close