দেশবাংলা

টঙ্গীতে শ্রমিকদের বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে কয়েক দফায় বাড়ানো বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ সিন্ধান্ত অনুযায়ী কারখানায় বেতন ভাতা পরিশোধ না করে শ্রমিক ছাটাইয়ের সংবাদ পেয়ে বিক্ষোভ করেছে শ্রমিকরা। গাজীপুরের টঙ্গীর তিস্তা গেইট এলাকায় স্পেক্টা সোয়েটার লিঃ নামক কারখানার শ্রমিকরা সোমবার দুপুর থেকেই বিক্ষোভ করে।

বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকরা ঘন্টা ব্যাপি ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের দুই পাশে অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকে। এসময় টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলাম তাদেরকে রাস্তা থেকে সড়ে যাওয়ার অনুরোধ করলে শ্রমিকরা তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। পরে তিনি ঘটনাস্থল দ্রুত ত্যাগ করার চেষ্টাকালে তার গাড়ির উপর হামলা চালায়।

এসময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা তার গাড়ি ভাংচুর করে। পরে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা আরো কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর করে। এ সময় রাস্তায় জরুরী প্রয়োজনে চলাচল করা সকল যানবাহন থেমে থাকায় দীর্ঘ যানবাহনের সারি দেখা দেয়। গাজীপুর জেলায় লকডাউন ঘোষণা করায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে, বিরাজ করছে থমথমে অবস্থা।

অথচ এই বিশেষ পরিস্থিতিতে রপ্তানি আয়ের শীর্ষে অবস্থান করা পোশাক খাতের শ্রমিকদের বিশেষ নিরাপত্তায় মালিকপক্ষ কোনো ভূমিকা না রাখায় শ্রমিকরা বিক্ষোভ করছে। শ্রমিকরা জানান, টানা কয়েক সপ্তাহ ছুটি চলছে। পূর্বে নির্ধারিত ঘোষনা অনুযায়ী আজ বেতন দেবার কথা থাকায় সকালে কারখানায় কাজে যোগ দেয় শ্রমিকরা।

পরে দুপুরে মার্চ মাসের বেতন বকেয়া পরিশোধ না করার শ্রমিকরা মহাসড়কের অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে। তবে কারখানা কতৃপক্ষ কাউকেই দেখা যায় নি। এবিষয়ে যোগাযোগ করা হলে শিল্প পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (টঙ্গী জোন) এস আলম জানান, বেতন পরিশোধ করতে কারখানা মালিকের সঙ্গে কথা বলেছি। আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই বেতন দেয়া হবে।

তাওহীদ কবির, টঙ্গী প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close