আন্তর্জাতিক

করোনা: বিশ্বে একদিনে মৃত্যুবরণ করেছেন ৫ হাজার ৭শ জন

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আবারো বাড়লো প্রাণহানির সংখ্যা। গত দু’দিন কিছুটা কমলেও, গেলো ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণ করেছেন পাঁচ হাজার সাতশো ৮৭ জন মানুষ। এরমধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মারা গেছেন দুই হাজার তিনশো ৫০জন।

সবকিছু যখন অনেকটা স্বাভাবিক হওয়ার পথে ঠিক তখনই দীর্ঘ হতে শুরু করেছে মৃত্যুর তালিকা। করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় বিশ্বজুড়ে মারা গেছেন সাড়ে পাঁচ হাজারের বেশি মানুষ। যার প্রায় অর্ধেকই, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৭২ হাজার।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ২৩৫ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ২০৫ জনই নিউইয়র্ক শহরের বাসিন্দা। যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাজ্যে। সেখানে মারা গেছেন অন্তত দেড়’শ বাঙ্গালি। এছাড়া মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবে প্রাণ গেছে অন্তত ৬৪ জন প্রবাসীর।

এদিকে ইউরোপের দেশগুলোয় প্রাণহানি বেশ কমলেও বিপরীত অবস্থানে যুক্তরাজ্য। প্রাণহানির সংখ্যায় সারাবিশ্বে দ্বিতীয়স্থানে থাকা দেশটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় সাড়ে ২৯ হাজার। আর ইতালিতে মারা গেছেন ২৯ হাজার ৩১৫ জন। মৃতের সংখ্যায় ইতালিকে ছাড়িয়ে গেছে ব্রিটিশরা।

ইউরোপের আরেক দেশ স্পেনে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফ্রান্সে প্রাণ হারান ৩৩০ জন। আর গেলো একদিনে কোনো মৃত্যু হয়নি জার্মানিতে। বর্তমান সময়ে ইতালিতে করোনায় মৃত্যু এবং সংক্রমণ কমে আসায় লকডাউন শিথিল করা হয়েছে। ফলে কাজে ফিরতে শুরু করেছেন বাংলাদেশি প্রবাসীরা।

এদিকে, মানুষের ‌ওপর পরীক্ষা করে দেখার জন্য সফল করোনা ভ্যাকসিন তৈরির দাবি করেছেন ইতালির গবেষকরা। অন্যদিকে, ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বিজনেস টুডে বলছে, বিশ্বজুড়ে পরীক্ষামূলক ১০৮টি ভ্যাকসিনের মধ্যে ইতোমধ্যেই আটটি মানবদেহে প্রয়োগের অনুমতি দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। যার মধ্যে পাঁচটিই চীনের। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যে একটি করে ভ্যাকসিন তৈরির কাজ চলছে। অপরটি যৌথভাবে তৈরির কাজ করছে জার্মান কোম্পানি বায়োএনটেক ও যুক্তরাষ্ট্রের বায়োটেক কোম্পানি পিজফার।

করোনার পরিস্থিতির উন্নতির কারণে চীনের হুবেই প্রদেশের স্কুলগুলো খুলে দেয়া হয়েছে, শিক্ষার্থীরা ফিরতে শুরু করেছে স্কুলে। তবে স্কুলে ক্লাস করতে হবে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনেই।

বাংলা টিভি/রাসেল

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close