বিশ্ব বানিজ্যইউরোপবাংলাদেশমানবসম্পদ

গ্রীসে দীর্ঘমেয়াদী লকডাউনে কাজ হারিয়ে মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন প্রবাসীরা

করোনা পরিস্থিতিতে, ইউরোপের দেশ গ্রীসের অবস্থা অন্যান্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশ থেকে ভালো হলেও, ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারী থেকে, এখনো লকডাউন অব্যাহত রয়েছে। ফলে দোকানপাট, রেস্টুরেন্টসহ অন্যন্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায়, সমস্যায় রয়েছেন দেশটির নাগরিকসহ, প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

পর্যটনখ্যাত গ্রীসের সকল দ্বীপপুঞ্জ,ব্যবসা প্রতিষ্ঠান,হোটেল,রেষ্টুরেন্ট-বার,দোকানপাট ইত্যাদি গতবছর থেকে বন্ধ থাকায়, দেশটির জনসাধারণের জীবনযাপনে অনেক সমস্যা দেখা দিয়েছে। এ সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, মাঝে কয়েকদফা খুলে দিয়েও, করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় পুনরায় বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে দেশটির সরকার।

গ্রীসে, প্রায় ৩৫ হাজারের মত বাংলাদেশী বসবাস করেন।  এর মধ্যে প্রায় ১৫ হাজার অবৈধ অভিবাসী । বৈধ অভিবাসীদের অর্ধেকেরও বেশি সঠিক কর্মসংস্থান নেই।  সেই হিসেবে ২ হাজার গ্রীস প্রবাসী করোনাকালীন সময়ে, প্রতিমাসে সরকার থেকে ভাতা পেয়ে জীবনযাপন করছেন। আর বাকি বাংলাদেশীরা পড়েছেন ভয়াবহ আর্থিক সঙ্কটে।  ঘরবন্দী ও সরকারি হিসেবের বাইরে থাকায়, এ সকল প্রবাসীদের দেশে থাকা পরিবার থেকে টাকা এনে চলতে হচ্ছে।

এদিকে, করোনার ভয়ংকর ছোবলে, বিশ্বজুড়ে মানুষ যখন ভীত সন্ত্রস্ত,তখন করোনাকালে পরিবেশ ও প্রকৃতি তার হারানো রূপ ফিরে পাচ্ছে।  করোনার কারণে কলকারখানা বন্ধেএবং পরিবেশ দূষণ কম হওয়ায়, অনেক বছর পর তুষারপাত হচ্ছে।

করোনাকালীন পরিস্থিতিতে অন্যান্য দেশের প্রবাসীদের মত, বাংলাদেশী বেকার ও অনিয়মিত অভিবাসীরা গ্রীক সরকারের ভাতা ও সকল সুবিধা থেকে বঞ্চিত।  এমতাবস্থায়, বাংলাদেশ কমিউনিটি, বিভিন্ন দলীয় সংগঠন এবং স্থানীয় বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতা চেয়েছেন, এসব অসহায় প্রবাসীরা।

বাংলাটিভি/বিশ্ববাংলা

 

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button