অন্যান্যবাংলাদেশ

আবারো ডাকসুতে নুরের ওপর হামলা, আহত ১৫

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ভবনের সামনে ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের নেতৃত্বাধীন ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ওপর মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ও ছাত্রলীগের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে ছাত্রলীগ এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

রবিবার (২২ ডিসেম্বর) দুপুরে ডাকসুতে ভিপির কক্ষে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় নুর ও তার সংগঠনের ১৭ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এর আগেও কয়েকবার নুরের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টায় নিজের ফেসবুক পেজে লাইভে ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, আওয়ামী গুণ্ডাদের, আওয়ামী স্বৈরাচার সস্ত্রাসীরা আমাদের বিভিন্নভাবে হামলা-মামলা করে তারা দমন করতে চায়। আজকেও যখন বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে আমরা ডাক্তার দেখাতে গেছি ঢাকা মেডিক্যালে, সেখান থেকে ক্যাম্পাসে আসার পরই আওয়ামী গুণ্ডা ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা এবং তথাকথিত মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ হামলা চালিয়ে ডাকসু ভাঙচুর করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, ডাকসু ভবনের মূল ফটক বন্ধ করে নুরের ওপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলা ও ভাঙচুর করা হয়। এ ছাড়া বাইরে থেকেও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা ডাকসুতে ইট-পাটকেল ছুড়ছেন।

জানা গেছে, মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের একাংশের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুলের নেতৃত্বে অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী এ হামলায় অংশ নেন। এ সময় ডাকসুর সদস্য ও ছাত্রলীগ নেতা রাকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য তাদের বাধা দিতে গেলে তাকেও শিবির আখ্যা দিয়ে লাঞ্ছিত করেন তারা।

পরে সূর্যসেন হল সংসদের ভিপি মারিয়াম জামান সোহান এবং জিএস সিয়াম হামলায় অংশ নেন। তারাও লাঠিসোটা নিয়ে ভিপি নুর এবং অনুসারীদের মারধর শুরু করেন।

তবে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন। তিনি বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে আমরা দেখেছি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সঙ্গে ভিপি নুরের ঝামেলা চলছে৷ আজকে ভিপি নুর বহিরাগতদের নিয়ে ডাকসুতে প্রবেশ করেন। এতে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে। আমরা উভয়পক্ষকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ সুষ্ঠু রাখার জন্য আহ্বান জানিয়েছি।’

ডাকসুর সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘বহিরাগত নিয়ে ভিপি ডাকসুতে অবস্থান করেছেন। তার অনুসারীদের সঙ্গে অস্ত্র ছিল। নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটেছে। আমরা আর ভিপি নুরকে ডাকসুতে প্রবেশ করতে দেবো না।’

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close