অন্যান্য

ছেলেকে নিজের অবস্থানে দেখতে চান না রিসি

প্রাণেশ রিসি জীবনের তাগিদে এসেছেন ঢাকায় হাতে তুলে নিয়েছেন, জুতার কালি তবুও চোখে স্বপ্ন ছেলেমেয়েকে মানুষের মতো মানুষ করবেন। ছেলেকে ভর্তি করিয়েছেন স্কুলে। ছেলের জীবনটাকে উজ্জ্বল করার অদম্য ইচ্ছা তার।

থাকেন মিরপুর-১৪ নম্বরে। ছেলেকে ভর্তি করিয়েছেন সেগুনবাগিচা প্রাইমারি স্কুলে। প্রতিদিন সকালে এক হাতে জুতার কালি, সারাইয়ের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম, আরেক হাতে ছেলেকে নিয়ে বেরিয়ে পড়েন।

ছেলেকে স্কুলে দিয়ে, তিনি গেটের বাইরে কাজ করেন। আর অন্য সময় নিজের কাজের পাশাপাশি ছেলেকে ক্লাসের পড়া দেখিয়ে দেন। ছেলের নাম নক্ষত্র। সে এখন পড়ছে দ্বিতীয় শ্রেণিতে।

সন্ধ্যা হলে আবার ফিরে যান মিরপুরে। রিসি জানান, তার ছেলেকে নিজের অবস্থায় দেখতে চান না। ছেলে যেন নিজের ও দেশ-মানুষের জন্য কিছু করতে পারে সেই স্বপ্ন বুনে চলেছেন এই দিন মুজুর।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close