বিশ্ববাংলা

‘কন্যা শিশুর শিক্ষা ও প্রাক শৈশব উন্নয়ন অতি গুরুত্বপূর্ণ’

চলতি বছরে ইউনিসেফ যে সকল বিষয়গুলোতে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছে, তার মধ্যে কন্যা শিশুর শিক্ষা, ক্ষমতায়ন ও প্রাক শৈশব উন্নয়ন অন্যতম-বলে মন্তব্য করেছেন, জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও ইউনিসেফ নির্বাহী বোর্ডের সভাপতি, রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা।

জাতিসংঘ সদরদপ্তরে ইউনিসেফ নির্বাহী বোর্ডের ২০২০ সালের প্রথম নিয়মিত সেশনে সভাপতির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি। চলতি বছরের এই প্রথম সেশন আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে।

রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, আমাদের কন্যাশিশুদের ক্ষমতায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম; সে প্রতিশ্রুতি অবশ্যেই রক্ষা করতে হবে। এখনও বিশ্বের ৬৬০ মিলিয়ন শিশুকে দারিদ্রতা থেকে মুক্ত করা যায়নি এবং এখনও ৬০ মিলিয়ন শিশুকে স্কুলে নেওয়া যায়নি বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।

সাইবার অপরাধ, সুদীর্ঘ সময় ধরে চলমান মানবাধিকার সঙ্কট,জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবসহ বিভিন্ন বৈশ্বিক সমস্যা যা শিশুদের অস্বাভাবিকভাবে প্রভাবিত করতে পারে, সেসকল বিষয়ে ইউনিসেফের আরও কাজ করা উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি।  ইউনিসেফের কার্যক্রমে দক্ষতা বৃদ্ধি করতে উদ্ভাবনী অনুশীলনের প্রতিও জোর দেন রাষ্ট্রদূত।

এসময় শিশুবান্ধব নীতি প্রণয়ন ও দেশের যুব জনগোষ্ঠীর দক্ষতা উন্নয়ন কর্মসূচি গ্রহণসহ, রোহিঙ্গা শিশুদের অব্যাহত সমর্থনের জন্য, ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক মিজ্ হেনরিয়েটা ফোর বাংলাদেশ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করেন।

আব্দুল হামিদ, নিউইয়র্ক প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close