দেশবাংলা

টঙ্গীতে সেনাবাহিনী ও পুলিশের যৌথ টহল

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও আনসার সদস্য গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গীতে টহল দেয়। বিনা কারণে মানুষকে রাস্তায় ঘোরাফেরা না করার জন্য অনুরোধ জানায় তারা।

সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন স্থানে যৌথবাহিনীর টহল শুরুর পর থেকে রাস্তা ফাঁকা হয়ে যায়। রাস্তায় মানুষ না থাকায় অটোরিক্সা, রিক্সা এমনকি ভ্যানের সংখ্যাও কমে যায়। এদিকে শহরের ফার্মেসি, মুদি ও কাঁচাবাজার ছাড়া সব দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। তবে অকারণে সড়কে ঘোরাঘুরি করায় এখন পর্যন্ত কাউকে শাস্তি কিংবা জরিমানা করার খবর পাওয়া যায়নি।

সেনাবাহিনীর মেজর মাহফুজ বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে গাজীপুরসহ টঙ্গীতেও টহল শুরু হয় আমাদের। বিনা কারণে রাস্তায় ঘোরাঘুরি করা অনেককে করোনাভাইরাস সম্পর্কে বুঝিয়ে ঘরে ফেরাতে সক্ষম হয়েছি আমরা। যারা অতি প্রয়োজনে রাস্তায় বের হয়েছেন তাদের মাস্ক ব্যবহার করতে বলা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট, পুলিশ ও আনসার সদস্য রয়েছেন। নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট মোরশেদ আলম বলেন, টঙ্গীর এরশাদ নগর বস্তিতে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ১৬ জন ব্যক্তির অবস্থান পরিদর্শন করেন। তাদের প্রতি সার্বক্ষনিক নজরদারী করা হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন। টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আমিনুল ইসলাম জানান, বিনা কারণে কেউ বাইরে থাকলে তাদের বাড়িতে ফিরে যেতে বলা হচ্ছে।

প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় পুলিশের টহল টিম রয়েছে। এছাড়া করোনা প্রতিরোধে মাক্স বিতরণ করেন তিনি। গাজীপুর সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ খাইরুজ্জামান বলেন, হোম কোয়াইন্টাইনে থাকা রোগীদের তালিকায় নতুন করে কেউ যোগ হয়নি। সেই সঙ্গে নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট মাঠে রয়েছে, নিয়ম ভাঙ্গলে শাস্তি পেতে হবে।

তাওহীদ কবির, টঙ্গী প্রতিনিধি

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close