বিশ্ববাংলা

মালয়েশিয়ায় স্থানীয়দের চেয়ে প্রবাসীরাই বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন

মালয়েশিয়ায় করোনা সংক্রমণের হার কিছুটা কমে এলেও এখনও বিপুল সংখ্যক প্রবাসী লকডাউনের কবলে পড়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। মালয়েশিয়ায় স্থানীয়দের তুলনায় প্রবাসীরাই বেশি করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। ফলে, প্রবাসী অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে করোনা পরীক্ষা শুরু করেছে দেশটির সরকার।

গত শনিবার দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগের মহাপরিচালক ডা. নূর হিশাম আব্দুল্লাহ এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, মালয়েশিয়ায় প্রবাসীরা খরচ সাশ্রয় করতে, অল্প জায়গায় বেশী মানুষ একসাথে বাস করেন। স্থান অনুযায়ী লোকের ঘনত্ব বেশী থাকায়, প্রবাসী অধ্যুষিত এসব এলাকায় করোনার জন্য নির্ধারিত সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা প্রায়ই সম্ভব হয়না। ফলে, দ্রুত সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে।

দেশটিতে ইতোমধ্যেই ইন্দোনেশিয়ার ১০৮ জন, ফিলিপাইনের ১০৪, বাংলাদেশের ৬৩ , ইন্ডিয়ার ৬০ ও পাকিস্তানের ৫১ জনসহ অন্যান্য দেশের প্রবাসীরা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন । ডা. নূর হিশাম দুঃখ প্রকাশ করে জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সক্রিয়ভাবে বিদেশি কর্মীদের হেলথ স্ক্রিনিং টেস্ট কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

কিন্তু অনেক বিদেশি কর্মী পরীক্ষার জন্য এগিয়ে আসছেন না । ফলে, সব প্রবাসীকে পরীক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে দেশটিতে একটানা লকডাউন আর নানা রকম আইনি বিধিনিষেধ আরোপের ফলে, আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা কমতে শুরু করেছে ।

এদিকে, ত্রাণ পেয়ে অধিকাংশ প্রবাসী কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেও, ত্রাণ সামগ্রীর গুণগত মান এবং পরিমাণ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button
Close